“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

সোমবার, ২৬ মার্চ, ২০১৮

আহত সময়

।। দেবলীনা সেনগুপ্ত।।

(C)Image:ছবি












হত পালকের মত
ঝরে পড়ছে সময়
পাখির ঠোঁট থেকে
খসে পড়ছে বীজধান।
তাকে মাথা পেতে নেবে,
পৃথিবীতে নেই কোন অলৌকিক শিশু আজ।
অলস আয়ুষ্কাল কাটায় মানবের দল
হীন সংলাপে
গলিত আঁধারে ঢাকে অকস্মাৎ, বায়ু মাটি জল
খর মধ্যাহ্নদিনে ।
যত্নহীন পড়ে থাকে সময়ের শব
প্রহরায় একা ঈশ্বর , অবিচল ।



( প্রকাশিত, দৈনিক বজ্রকন্ঠ )
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন