.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

মঙ্গলবার, ৬ মার্চ, ২০১৮

গুঞ্জন

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি










হে বসন্ত, রঙ নিয়ে এসেছিলি মন থেকে মনে 
দোলা লেগেছিল কারো
মেরুদণ্ডের মগডালে,
যেখানে মাথা ঘোরানোর সন্ধিসেতু
যেখানে ঋতুবদলের চত্বর;
কোন এক কোকিল এসেছিল
ডাল থেকে ডালে বসে বলেছিল মিষ্টি সুরে
দূরে নয় ঘুমপাড়ানিয়া গান
ভুলে যাও বয়স গেছে সত্তর।
আমি রঙবেরঙের ফুল অথবা ভ্রমরের গুনগুন
কোন ঝুনঝুনওয়ালার পল্লীগান শুনতে চেয়েছি,
অথচ দেউলিয়া বাতাস শুধুই ধুলো নিয়ে আসে
ঘোলা হয় রঙ
ফ্যাকাসে সুখ
 
বুকের ভেতর বরাবরের মতোই গুঞ্জন।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন