.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ১ মার্চ, ২০১৮

বাসন্তী-সাধ










।। সিক্তা বিশ্বাস।।
     
লাশ বলে , আগুন জ্বালো •••
শিমুল বলে ,আগুন জ্বালো
•••
মনের ঘরে
  জ্বালো আলো •••
ঘুচাও যত বোধের কালো !
অশোক-কিংশুক
  তাঁরাও বলে,
আবীর ঢালো ,আবীর ঢালো
•••
বিশ্বভুবন রাঙিয়ে ফেলো
•••
উদাসীমনে আওয়াজ তোলো
নিষ্প্রাণেতে দেহ প্রাণ
•••
বাড়াও সভ্য -সমাজ মান !
প্রেমের আলো আপনি জ্বলে ----
  
ভালো-মন্দ
  অবহেলে  •••
জীবনযুদ্ধে
  চাই যে শিক্ষা !
বোধের আলোই পরম দীক্ষা
•••
পলাশ-শিমুল তাইতো বলে ,
অমন আলো চাই
  মনোবলে •••
কতো অভাগা বিপাকের কবলে !
পুড়ছে জ্বলছে সমাজ-সরীসৃপের হলাহলে !
কতো অনঘ অনাথ বিনা মাতৃকোলে !
জীবন যেন তাঁদের না হয় বিষাক্ত তিলে তিলে !
সুষ্ঠু সমাজ গড়া চাই তাইতো পলে
  পলে •••
পলাশ -শিমুল
  তাইতে বলে ,
আগুন জ্বালো , আগুন জ্বালো ----
ভুবন কর আলোয়
  আলো •••

          ***********
*ঝোড়োমেঘ*
১ -৩ -১৮ ইং,
   শিলং |





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন