“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

মঙ্গলবার, ১৩ মার্চ, ২০১৮

আলো

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি













দিনের আলো কমে এলে 
ঘোমটা টেনে মুখ ঢাকো কালোয় ?
আমি কালোতেও হেঁটে যাই
তোমার অভিমুখে।
মুখ তুলো, চোখ খুলো, দেখো--
পুরো আকাশ জুড়ে কতো আলো
ছড়িয়ে ছিটিয়ে বিচ্ছিন্ন বিক্ষিপ্ত
কতকগুলো ভীতু মুখ
মিটমিট চোখে তোমাকেই দেখছে।
ঘোমটা ফেলে দেখো
 
রাত মানেই মৃত্যু নয়
 
মৃত্যু নয় কোন জমাট স্বপ্নের
কালো মানেই কোন রঙিন ছবির ফ্যাকাসে মুখ নয়
বরং এমন কালো রাতেও আলো জড়ো হয়
কালোত্তীর্ণ হতে পারে রাত্রি জাগরণ।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন