.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

মঙ্গলবার, ৬ মার্চ, ২০১৮

বিনাশক

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি










যেখানে দাঁড়িয়ে আছি একা
তার ঠিক নিচে গলা ফাটিয়ে কেউ বলছে--
পালাবদল হলেই বরাবর দেখি
অস্থির হয়ে ওঠে চেনা মানুষের শরীর,
দেখি অবুঝ এক বয়ঃসন্ধি
বিনাশের ছক কষে।
দেখি, অসময়ের উষ্ণ স্রোত মানুষের চোখে।
পর্দায় ভেসে ওঠা হতাশার ছবি
চোখের কোলে উল্টোগাঙ,
শূন্য ময়দান খুঁজে কোন বাউল কবি
প্রতিফলনের পর ঝড় তোলে মনের ভেতর,
বুকে ভয়ার্ত হুকুমপেঁচা
ভয়ানক ডাকে।
.
যেখানে দাঁড়িয়ে আছি একা
তার উষ্ণতা মহামিলনের জানি, তাই...
নিঃশ্বাস ভারী হবার আগেই ছুঁয়ে দিস কেউ,
আরেকটা পালাবদল দেখার বড়ো শখ।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন