.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১৪ মার্চ, ২০১৮

পদ্মঘর

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি











কেকটি সিঁড়ির গোপন ফাঁক খুঁজে কৃত্রিম বাতাস আসে ঘরে,
পদ্ম ছোঁয় পদ্মের ভেতর।
বুকের ভেতর শীতল বুক,
তবু শরীর জুড়ে লবণাক্ত শুষ্কতা।
অস্থির শরীরগুলো বহুদূর ঘুরে স্থির হতে এলে
একঘর নীরবতা জেগে ওঠে,
সাময়িক চেনা হয় ধ্যানকক্ষ।
কক্ষচ্যুত হলেই আবার একেকটি গরমনদী খরস্রোতা।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন