.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ২৭ নভেম্বর, ২০১৭

রক্তাক্ত চিঠি


   ।। রফিক উদ্দিন লস্কর ।।

(C)Image:ছবি














পাথরের গায়ে লাল রঙ মেখে স্মৃতিরা হাতড়ায়,
বিষণ্ণ বিকেলে অশ্রু বর্ষায় সব ধুয়ে মুছে যায়।
বিরহী পালক ছড়িয়ে ছিটিয়ে দেয় রাস্তার মোড়ে,
গোধূলি লগনে আত্মার চলাচল রাস্তায় ধূয়া উড়ে।
মিটমিটে আলো শ্বাপদের ভয় প্রতি পদে পদে,
ভয়ে জবুথবু সাঁতার কাটে একাকী রক্তাক্ত হ্রদে।
শিউরে উঠে বিনিদ্র রজনী পাঁজর ভাঙার চিৎকার,
ঘেঁটুবন কোলাহলে মাতে অন্ত পড়ে সব নীরবতার।
আঁধারচিত্র বসে বসে আঁকে রক্তের পেন্সিল,
কর্ণকুহরে চাপা শব্দ উতরায় করে মহা মিছিল।
 
টিপটিপ
 পায়ে এগিয়ে চলে হতাশার সকল ছাপ, 
বলাকার ভিড়ে হানা দেয় কাক, বাড়িয়ে দুই ধাপ।
                         ***********
২৭/১১/২০১৭ইং
নিতাইনগর, হাইলাকান্দি (আসাম-ভারত)




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন