“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

সোমবার, ৫ নভেম্বর, ২০১৮

চরিত্র

।। অভীক কুমার দে ।।

খোলা শরীর
অপাত্র বুক
এক মহাশূন্য ভেদ করে আলো
চোখ খোঁজে;

চোখ আর সত্যের মাঝে একটি নদী।

প্রতি ফলনেই নিপুণ কাজ
আলোর গায়ে কালো যখন
কালোর গায়ে আলো।

নিয়মের কক্ষপথ
অবুঝ শিশু ঘোরে আর ঘোরে

কাঠামোর ভেতর প্রতি মা ঘুমায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন