.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ২ এপ্রিল, ২০১৮

প্রজন্মান্তর


  ।।    ফিক উদ্দিন লস্কর  ।। 

(C)Image:ছবি
















ক জগত থেকে আরেক জগতে বিচরণ 
আকাশ মহাকাশ এখন বাস্তব কল্পনার,
হাতের মুঠোয় সারা বিশ্বকে গেঁথে রাখি
নেশার করাল গ্রাসে পুরো লণ্ডভণ্ড।
বিপত্তি এইতো, এসে গেছে ঝড় বাদলের দিন
রাতের ঘুম নেই, কারণ চতুর্থ প্রজন্ম।
আড্ডা দেই অথচ কেউ কারোর সাথে কথা নেই
সবাই ব্যস্ত থেকে ব্যস্ততম, মাথা তুলতে পারিনি।
ছবিতে কথা কই, তবে একটু আলো চাই
নইলে আধারে বসে খিলখিলে হাসি
হয়তো রাগ জমে উঠবে মাথাচাড়া দিয়ে।
হাটে ঘাটে বাসে ট্রেনে অথচ নানান কাজের ফাঁকে
একবার হলেও পড়ে নেই সমস্ত দেওয়াল লিখন।
তর্ক বিতর্ক ফ্যাসাদে লেগে যাই তুচ্ছার্থক শব্দে
ভীষণ মাথাধরা,ব্যথার পাহাড় জমা হাড়ে হাড়ে।
তবুও ভালো লাগে চোখের সামনে ঝাপসা অক্ষর
রাত দিন এক হয়ে গেছে একতিল ও পার্থক্য নেই
গাড়ির শব্দ রাস্তার ধুলো জানান দেয় মাঝেমাঝে।
ঝিঁঝিঁপোকার ডাকে আর আকাশের জোছনায়
মনে করে দেয় কোথা থেকে কোথা আছি আমি। 

অবসাদের গ্রহে চলাচল রাতের ঘুম উড়ে গেছে
নেই খাওয়ার রুচি, হাতের কাছে সব পাওয়া যায়।
সবশেষে একটাই ভালো থেকে আরোও ভালো চাই
সকল সুযোগ সুবিধায় থাকি আমি ঊর্ধ্বে সবার।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন