.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৮

পৃথিবীর আকাশ

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি










ভেতরে বৃষ্টি খুব,
ভিজে ভিজে কেঁপে উঠছে কেউ, হায়...
.
আকাশ প্রেমিকের মতো
 
নীল প্যারাসুট জড়ায়,
শূন্যতার চোখে চোখ রাখে,
আকৃষ্ট গোলক ঘুরতে থাকে আর শান্তি চায়।
.
পাখি জানে--
মায়াবী আকাশ মেঘ ভাসায়
জল ঝরায়
রঙ ছড়ায়
আবার সহজেই মোছে মুখ
সুতরাং কোন তাপ নয়, উত্তাপ
সময়ের ভেলা বায়।
.
বাইরে খুব বাতাস
জল টেকে না চোখে
গড়িয়েও পড়ে না
শুধু তারাগুলো একেকটি পাখি, উড়ে যায়।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন