“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

রবিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০১৮

ধর্ষিতা কুমারী

।।  রফিক উদ্দিন লস্কর ।। 



(C)Image:ছবি

















মার মতো তোদের ঘরে
আছে অনেক মেয়ে,
লোভের বশে,আমার পানে
আসলি ছুটে ধেয়ে।
কতই বা আর হবে আমার
বারো কিংবা তেরো,
যৌবনেতে পা ফেলাইনি
তবুও আমায় ধরো?
সুযোগ বুঝে একলা পেয়ে
না হলে জোর করে,
কামবাসনা নিয়েই তোরা
বিদ্ধ করো মোরে।
শরীরের থেকে বস্ত্র খুলে
মেটাও না'কি কামনা, 

আমার তো আর নেই কিছু
পাই যে নরক যন্ত্রণা। 

আমার মতই তোদের ঘরে
আছে যে কত মেয়ে,
একটুও কি হয়না দরদ
ওদের দিকে চেয়ে!?
পালা বেধে মস্তি করবি
লাশ বানিয়ে মোরে,
বুক ফুলিয়ে করবে গায়েব
দেশ নেতাদের জোরে।
তোর বোন বা মেয়েটাকে
কেউ করলে এমন দশা!
তাহলে কি আর থাকবে বসে
হারিয়ে সকল ভাষা?
ধর্ষণের পর প্রমাণ লোপাটে
আমায় তোরা কর খুন,
বলছি আমি আর করিস না 

সর্বনাশ কারো মেয়ে বোন।
১৫/০৪/২০১৮ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি।।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন