.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শনিবার, ২৪ জুন, ২০১৭

গুরুদেবের প্রতি


                 
       ।।    রফিক উদ্দিন লস্কর   ।। 

(C)Image:ছবি




















(আমার প্রিয়, শ্রদ্ধেয় স্যার 'সুশান্ত কর' মহাশয়ের নামে উৎসর্গীকৃত।) 

প্রসাদে তুষ্ট মন,কঠিন শৈলে করছি খনন,
ঘোর তমসায় প্রকাশ পায় মধ্যাহ্ন কিরণ।
দশদিকে যার প্রসারিত ভূজ, লৌহ ভেদে,
বঙ্গ গায়ে শোভা পায়,বজ্র কাঠিন্য সেধে।
পূবালী হাওয়া ঝড় তুলে, তপ্ত মরুর বুকে,
উত্তরায়ণ ঘটে যথা এলোকেশী ভূলোকে।
খরার মাঝে,আপন করে ঢেলে দিলে জল,
চাষার মনে কি আনন্দ! শক্ত করেছে হল।
জীবন রথে উঠেছে গতি, লক্ষ্য নয় যে দূর,
ভ্রষ্ট পথিক, ফিরবে ঘরে কর্ণে ডুকেছে সুর।
আশিস যার নিত্য আছে, তাতে কি'বা ভয়!
ছন্দিত প্রতি পদ, জীবনে প্রকাশ নতুন লয়।
ঝড় এসে দোলা দেয়, নন্দিত সুরের কাননে,
এমনি করে ঘন্টা বাজে, শত হাজার বারণে।
স্বপ্নের জীবন করে অর্পণ, শুধু গুরুর নামে,
গগনে উড়বে নিশান, কীর্তি রবে ধরাধামে।
           ---------------------------------
২৪/০৬/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি(আসাম-ভারত)
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন