.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ২৫ জুন, ২০১৭

উৎসব


         ।।    রফিক উদ্দিন লস্কর    ।। 

(C)Image:ছবি
(C)Image:ছবি












জকে ছিলো রথযাত্রা, কালকে হবে ঈদ;
উৎসবেতে মেতে উঠলো সব মানুষেরই হৃদ।
পাড়ার মাঠে সাজান ছিলো পুরান রথখানি
'জয় জগন্নাথ' বলে সবাই নিলো তাহা টানি।
বাঁকা চাঁদ ঐ উঁকি দিলো নীলাকাশের গায়,
ঈদের খুশি সবার মনে জোয়ার দিয়ে যায়।
রথের মেলায় এসে খুকি কাঁদছে বসে বসে,
মা ভাই যে হেরে গেছে রথের মেলায় এসে।
খোকন সোনা গুনছে সময় কবে হবে প্রাত,
ঈদগাহেতে ছুটবে সকাল করেই বাজিমাত।
উপর হতে মেঘ নেমেছে, কালও যদি থাকে,
কেমনে যাবে ঈদগাহে, শুধায় তাহার মা'কে।
রথে এসে বকুনি খেয়ে কাঁদে খোকন সোনা,
পেঁপা বাঁশি কিনতে গিয়ে মা করেছেন মানা।
সকাল বেলা নতুন কাপড় আতর দিয়ে তায়,
ছুটবে সবাই নামাজ পড়তে খোলা ঈদগায়।
দোকানীরা সব চলে গেলো মেলা হলো শেষ,
পকেট ভারী হয়ে যাওয়ায় ভুলে গেলো ক্লেশ।
কালকে বুঝি আসবে ফিরে দোকান সাজিয়ে,
হরেক রকম খেলনা আর সঙ্গে বেলুন নিয়ে। 

----------------------------------------------------------
২৫/০৬/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি(আসাম-ভারত)



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন