.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ১৯ জুন, ২০১৭

তফাত শুধু এই যা...


।।শৈলেন দাস।।

(C)Image:ছবি





















পৃথিবীটা বদলে গেলেও
আমরা যা দেখি বা শুনি
তার সবটাই কিন্তু নতুন নয়
যেমন লালন ফকিরের গান
আর রবি ঠাকুরের কবিতা
রিমেক ও রিমিক্সের যুগেও
মোবাইলের রিংটোন হয়ে
বেজে উঠে আপন গরিমায়।
কাকভোরে যে মৃদু আলো
সকলের সকালের ঘুমটাকে
কিছুটা রোমান্টিক করে দেয়
সেটাও কিন্তু নতুন নয়।
আগে শুধু কুঁড়েঘরের
বেড়ার ফাঁক দিয়ে আসতো
এখন ফ্ল্যাটবাড়ির জানালার
কাঁচ ভেদ করে আসে তা।
ফুলের গাছ গুলি আজও
পত্রে পুষ্পে সৌন্দর্য বাড়ায়
একসময় গৃহস্থের আঙ্গিনায়
গাড়া থাকতো যাদের শেকড়
টবের কোচরে মানবীদের আদরে
ডানা ছাটা বাবু হয়ে আজ ওরা
পরাধীন, উদ্বাস্তু, যাযাবর
তফাত শুধু এই যা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন