.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ৩১ অক্টোবর, ২০১৬

‘ভারত ছাড়ো’_কিছু প্রশ্ন...


 লিখেছেন সুজা মজুমদার। 
ভালো লাগলো বলে তুলে দিলাম – আলি ইব্রাহিম
(C)Imageঃছবি

 














ভারত ছাড়ো, ছাড়তে পারি;কিন্তু যাওয়ার আগে;
কিছু প্রশ্নের অবশ্যই পেতে চাই সমাধান
ভারত মা-কে আমার,দেখেছো কি তোমরা --
জানো কি মা আমার,হিন্দু না মুসলমান?
মা কি বলেছে,আমরা তার অবৈধ সন্তান?
কিছু প্রশ্নের অবশ্যই পেতে চাই সমাধান!
ভারত ছাড়ো, ছাড়তে পারি,তবে যাওয়ার আগে;
কিছু প্রশ্নের জবাব,অবশ্যই খুঁজছি আমি,
এই মাটিতেই ত জন্ম নিলাম তুমি,আমি
তোমার না আমার, মা বলেছে কার,এই মাতৃভূমি?
মা,মাটি,মানুষ কিসের এই ব্যবধান?
কিছু প্রশ্নের অবশ্যই, পেতে চাই সমাধান!
এই মাটিতে দেখি,মন্দির,মসজিদ,গির্জা আর গুরুদ্বার,
এই মাটি একদা হয়েছে লাল,ভাইয়ের রক্তে আমার,
এই মাটি-ই  ফলায় বুকে,সোনা রঙ্গের ধান,
বলতে পারো "মাটি আমার,হিন্দু নাকি মুসলমান ?
কিছু প্রশ্নের অবশ্যই,পেতে চাই সমাধান !
ভারত ছাড়ো, ছাড়তে পারি,তবে যাওয়ার আগে,
জানিতে চাই অবশ্যই,কি আছে আমার ভাগে!
এই আকাশ,বাতাস,আলো আর জল,
আমার ভাগে দেবার,কি আছে বল?
আমি অধিকার চাই,ভাবিস না কোনো অনুদান!
জানিনা ত ওরা কে হিন্দু আর,কে মুসলমান?
জবাব দিলেই আমি,করি প্রস্থান!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন