.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

নদীর সাঁকো আমি

।। অভীক কুমার দে ।।


(C)

















থিক, তুমি পার হতে চাও ?
নদীর সাঁকো আমি
ব্যবহার করবে করো,
আমাকেই করো,
যতটুকু পারো ব্যবহার করো
সইতে পারি বা না পারি।
.
তুমি আমি পথিক কিংবা সাঁকো
নদী নই,
নদী নয় তুমি আমি
নদীর আছে স্রোত, আছে গভীরতা, 

আছে শব্দ, আছে সুর
তাল, ছন্দ আর নীরবতায়
ওখানে শান্তি আছে।
তুমি তো পথিক
পর হতে জানো
তাই আমি নদীর সাঁকো।
.
সাঁকো আমি আজও অনেক দূরে 

নদীর উপর ঝুলে থাকা,
উপর উপরে ঝুলে
দোলনায় দুলে
রোদ্ররঙ গিলেছি অনেক,
জানি, একদিন শান্তি আছে।
যদি হৃদয় ধুতে পারো ব্যবহার করো,
আমাকেই করো,
যতটুকু পারো ব্যবহার করো
সইতে পারি বা না পারি...
পথিক, আমি নদীর সাঁকো।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন