.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

মনোবিকলন

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি











মি আমার লিপির কারিগর
নিজের দেয়াল খোদাই করি।
আমার সুনীল আকাশে খোলামেলা বাড়ি,
বর্ণময় উঠোন, কবিতার চারাগাছ,
উঠোনের গাছে শব্দের কুঁড়ি এলে
ফড়িং ওড়ে,
প্রজাপতিরাও আসে,
রঙ ছড়ায়, তারপর পরাগমিলন...
প্রতিবার পরাগরেণুর ছোঁয়া পেলে
বর্ণ মালায় সাজিয়ে রাখি আকাশ
মনের কলিতে সুর ধরে আর খোদাই করি।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন