.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

দাগ

।। অভীক কুমার দে ।।
(C)Image:ছবি











সামনে সমুদ্র। ঢেউয়ের পর ঢেউ। শেষবেলার চোখে সূর্যের জলসিঁড়ি।
প্রতিবিম্বের মুখে যখন লালচে আভা, ছায়াসুখ জলে ভাসে। সব ঢেউ মিশ্র রঙ নিয়ে আসে চোখে।
খুব কাছে যেখানে আকাশ জলে কথা কাটাকাটি,
পাখিতে জানাজানি হলে মেলে দেয় ডানা, ওড়ে আর গর্জন শুনে,
তল খোঁজে বাঁকা চাঁদ।
দূর থেকে ছুটে আসে জোয়ার। খোলা পা পিছু সরে। ভেজা বালি আরও ভিজে গেলে পুরোনো দাগ মুছে ফেলো সৈকত, তবু দাগ রেখে যায় ভাঁটা।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন