.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৭

কষ্টের আত্মকথা


 ।। রফিক উদ্দিন লস্কর ।।
(C)Image:ছবি















ক্তের গাঁট ছিন্ন করিতে লাগেনি  মুহূর্ত সময় তার,
যার পরশে বদলে গেলো একটি সুন্দর সংসার।
অকালে জন্মদাত্রী হারিয়ে গেলেন...
সাথে করে ভালোবাসা নিয়ে চলিলেন।
যার কাছে ভর করে দেখিতাম হাজার স্বপন আমি
 
অবহেলা,গঞ্জনা, জীবনে আঁধার আসলো নামি।
একরত্তি ভালোবাসা, সেও জুটলনা হিতে বিপরীত,
অভুক্ত! তবুও কথা নেই
  মনে যদি আসে প্রীত। 
এই জগতে কেবা আছে মোর, কে নিবে খবর,
 
কোন অসময়ে স্বেচ্ছায় চলে গেলে কে দিবে কবর ?
নীড় হারা পাখি দুচোখে শুধু আঁধার দেখি,
বলো! কষ্টকে আর কতো চেপে রাখি।
ভাঙা স্বপ্ন নিয়ে আর কতো পথে পথে ঘুরি,
ক্লান্ত দিশেহারা, পারবোনা বইতে আমি কষ্টের ঝুড়ি।
 
দিনরাত এই বুকে চিতার আগুন জ্বলে,
 
কী  ছিলো অপরাধ!, কোন সে কর্মফলে।
চোখের কোণে অশ্রু নিয়ে ভাবি বসে বসে
মরিতে হয় সময়ের আগে জানলাম অবশেষে ।
                           ------------
০১/১২/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি (আসাম-ভারত)




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন