.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৭

রুদ্র

।। অধিষ্ঠিতা শর্মা।।
(C)Image:ছবি

রুদ্র,
কায়া নেই অথচ তোমার ছায়া অহরহ ভেদ করছে আমায়। তোমায় না পাবার মধ্যেও তোমায় পাওয়া লুকিয়ে আছে। স্পর্শহীনতার মধ্যেও এক নৈসর্গিক স্পর্শ লুকিয়ে আছে। এই যে শব্দদের গায়ে খোদাই করে তোমার দেহ ফোটাচ্ছি, সেখানে এক বিন্দু হলেও তো তুমি আছো। তোমার ছায়া গিয়ে আজ রাতে যেন জানান দেয়, তুমি যার সাথে আলোছায়ার লুকোচুরি খেলো, সে তোমায় তার আকাশের রোদ্দুরে বন্দী করেছে। এই লুকোচুরির ছলেও কি আমায়ই ভাবছো না রুদ্র?

ভীষণ জ্বর... যদি আচ্ছন্ন হয়ে ঘুমিয়ে যাই,  শেষ রাতের বাতাসে এসে শিয়রে বসো আমার... কানে কানে তোমার নাম টা বলে যেয়ো...
তীব্র অসুখের ছলে যে তোমায়ই চাই।
তোমার নাম চাই... তোমার উষ্ণতা চাই... রুদ্র...

আলতো পায়ে হেঁটো আমার ভেতর... এই বুক তোমারই নীল বন্দর...

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন