.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০১৭

অজানা ব্যথা

(C)Image:ছবি
















।।  রফিক উদ্দিন লস্কর ।।

ঞ্চল মন তাই সারা দিন ঘুরে ভাবনার জগতে,
উদাস মনে নির্বাক হয়ে, চলছে সে কোন মতে।
মনন যুদ্ধ চলে সারা বেলা, তবুও হয়নি কিছু,
অজানা ব্যথা,কত কিছু কথা থাকে পিছু পিছু।
কত বিরহে দিন কাটে হায়! ভাবি বসে একান্তে,
রয়েছি পড়ে নীলাকাশের নীচে,ধরণীর ঐ প্রান্তে।
কেউ দেখেনি, কেউ শুনেনি হৃদয়ের আর্তনাদ,
কত আর সহি এতো জ্বালাতন, ধৈর্য মানে না বাঁধ।
জন্ম থেকে ভাসিয়ে চলেছি শুধু বেদনার সাগরে,
এখনি পাইনি কূল, হয়েছে পথ ভূল রয়েছি পড়ে।
লোহিত সাগরে তরী ডুবুডুবু, বইছে পাগলা পবন,
দিকভ্রান্ত মাঝি,তাকিয়ে দেখে সামনে মহাপ্লাবন।
আঁধার গ্রাসিছে আলো, এখনো বাকি অনেক পথ,
সাগর গর্জনে দুরুদুরু বুক, ভাঙামন হারায় হিম্মৎ।
সুদূরবিস্তৃত পথ, পাড়ি দিতে হবে একাকী এবে,
চুরমার করে শত ঢেউ তীরের দর্শন মিলবে কবে!

                         **********
২৭/০৪/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি(আসাম)
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন