.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ১২ আগস্ট, ২০১৮

সাঁইসংলাপ

।। অশোকানন্দ রায়বর্ধন ।।
(C)Image:ছবি







তোমার কথা অক্ষরে অক্ষরে মানলাম গুরু
তোমার কথায় জীবন করলাম শুরু
'পরের জাগা পরের জমিন ঘর বানাইয়া আমি রই'
মাগো তুমি জনম দিয়া ফালাইয়া গেলা কই ৷
আব আতস খাক বাত এই মাটি মিশাইয়া 
আমার জৈবন আমার জীবন এইখানে কাটাইয়া
দুঃখে সুখে হাসিমুখে জীবন করলাম পার
পারঘাটাতে আইয়া জানলাম সবই যে অসার
সাঁই গো, আট কুঠুরি নয় দরোজার ঘরটা গেল কই
ভবের ঘরের দরজা বন্ধ আমি মালিক নই

দেশি কী বিদেশি কী কাঁটাতার কয় কারে
মনের সুখে মানুষ থাকুক এই দুনিয়া জুড়ে
দুনিয়ার মালিক দীন দুনিয়ার দরোজা খুলেন হাজার
বান্দা এসে দরোজা বান্ধে আজব ব্যবহার
সাঁইজী পরের জা'গা পরেরই হয় পরেরই ভূমি
তোমার আউলা কথা বাসি হইব ঘর পাইবা না তুমি ৷
 
গান বাঁধবা ঘরের কথা কইবা আর কত
আজব ফরমান জারি হইল তুমি বহিরাগত ৷





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন