.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

অসময়

।। মধুমিতা নাথ।।
























বাপ -----
নাহি সুনলি বটেক
ইত্তবার কইরে তুকে চিল্লা চিল্লা কে ডেইকেছিলুম
নিসুত খাঁ খাঁ মাঠের বুড়া বটগাছটায় পক্ষীগুলান ঝটপটাইছিলস মুর মত ----
হাত পাওগুলান ইক সময় অসার হই গেলস ...

ঐ বাপ -----
তু মুকে ইত্ত নাজুক কিনে বানাইছিলিস !
গতরে তুর মতো মর্দাঙ্গি নাহি দিলিস ,
জনম দিলি , বেইচে থাকার জুর নাহি দিলি গ ...

ভাইকে ভইষের দুধ পিলাইছিস ,
ফুটবল খিলাইছিস , কুস্তি আখড়ায় পঠাইছিলিস ...
মুর লাগি তুর ঘরে দুধ নাহি ছিলস !
মুই ফুটবল খেলতে চেইয়েছিলুম ,
কুস্তি ভি লড়তে সাধ ছিলস গ
নাহি দিলি বটেক , বুললি ----
"ইটা মাইয়া মাইনষের কাম নাহি আছে" ....

ঐ বাপ ----
তু মুকে বেটা বুইলেছিলিস ,
লেকিন বেটা নাহি বানাইছিলিস !
ভগবান ভি মুকে বিটি বনাইল
তু ভি মুকে বিটি বনাইয়ে রাখলি গ ...

ঐ বাপ -----
তু জানিস ন
বিটি হওয়া বড় দুখ আছে রে
ই হমার গতর আজ হমার শত্তুর হইল বটেক !
তু নাহি দেখলি , তুর বিটির চুখে জল নাহি ছিল ,
আগুন ছিল রে ----- আগুন !
কত্ত খুন ঝইরে গেলো ,
দাগ আভি ভি নাহি মিলাইল ...

ঐ শকুনটা যখন বুকের মাংস খুবলেছিলস ,
মুই কান্দি নাই
মুর বুকে বাতাস আটকে ছিলস
শেষবার তুকেই ডেইকেছিলুম

ঐ বাপ ------
কিনে নাহি সুনলি ,
মুই কি দূষ কইরেছিলুম !
শুধু ত ভালো বেইসেছিলুম , ভরোসা কইরেছিলুম ...
যেমন তুকে কইরেছিলুম
মুই নাহি বুইঝেছিলুম রে
ঐ শয়তানটার মর্দাঙ্গিতে কুনু দরদ নাহি ছিল !
কিবল বিষ ছিলস গ ---- বিষ ...

ঐ বাপ -----
মুর নিথর গালে ইকবার তুর আদর বুলাই দে
তুর শেষ আদর ,
আর ছকল বাপগুলানরে বুইলে দে ----
"বিটিয়া কো ভি মরদ জেইসে বনাও , মুকাবিলা সিখাও ,
লড়তে সিখাও , বেঘোরে মরতে নাহি , বাঁচতে সিখাও ..."।।

                 ----------------//-----------------

উৎসর্গ : আমার শহর ধর্মনগর কে ----


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন