.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ৩ মার্চ, ২০১৭

ফিদেল

















।। অর্পিতা আচার্য।।




মাদের ব্যর্থতার কথা সাতকাহন -
বেশ, তবে বল দেখি এই যে স্ফুরণ
সারা বিশ্ব জুড়ে, আগ্রাসী দানোর মত 
মাৎসর্যের ! তা বুঝি সফল ?
সাফল্যের কোন খতিয়ান মুছে দেবে
রক্তস্নাত লোভ ও মোহের এই ইতিহাস ?
এই যুদ্ধ, চাতুর্য ও পরাস্বপহরণ
ধনতন্ত্রী গর্জনের বিপুল বিস্ফার ?
যুক্তিহীন লাগে না কি অমানবিকতার এই
আস্ফালন, পৃথ্বীভরা রোগাক্রান্ত
একদল মানুষের সমূহ গর্জন ?
সেদিন বিরাশি জন, ভেসে যায় স্বপ্নিল ইয়াচ -
স্বপ্ন আর সত্যির ফারাকেতে আসমুদ্র আগুন রক্তিম ;
একটি স্ফুলিঙ্গ শুধু, যতবার জল ঢালবে
বারবার জ্বালাবোই তা -
আমার বুকের মধ্যে বাস করে
ফিদেল, কিউবা।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন