.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ২৬ মার্চ, ২০১৭

স্রোতস্বিনী

।। মধুমিতা নাথ ।।














দীর সঙ্গে মিল খুঁজেছো কখনো ---
তোমার প্রয়োজন মেটাতে দুঃখ ঢেউ নেই কোনো
ভালোবেসে জল ছুঁয়ে দেখো , পায়ের পাতা ডুবিয়ে
খেলো খুশিখুশি নিক্বণে
তোমার জন্য একটা সভ্যতা গড়ে দিতে পারি
মেসোপটেমিয়ান ...

তোমার প্রেমহীন প্রয়োজনেও হাসতে থাকি
নৌকোর পাটাতনে ছলাৎ যেমন ,
তোমার জ্ঞানী উদাসীনতায় নিশ্চুপ হাহাকার ওঠে
শেষরাতের জোয়ারে
তোমার দুর্বিনীত ভাবাবেগে ছুঁড়ে দেওয়া
আবর্জনা বুকে স্বচ্ছতোয়া গতি থমকায় প্রতিটি বাঁকে

দেখতে থাকো ...
সব কাজ সেরে , তোমার অবজ্ঞায় , তোমার উন্মাদনায় ,
তোমার জন্য তোমারই অজান্তে
হয়ে উঠতেও পারি এক মহামারী ---

এর নাম প্রকৃতির প্রতিশোধ।।





           ---------------//------------





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন