.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ, ২০১৭

কুমেরু বসন্ত



     
















।।মধুমিতা নাথ ।।

পৃথিবীর কোনো প্রান্তে এক কুমেরু
সুষুম্নাকাণ্ডে প্রবাহিত নীল স্রোত
গভীরতর নীল সঙ্গমে ,

কঠিন স্বচ্ছ সাদা মাঠে নৈঃশব্দ খুঁজে
কালির আঁচড় কাটা অংকুরিত কবিতা-গাছ ,
মধ্যরাতে ----
ভ্যানগগ্ সূর্যমুখীর সূর্যোদয় বিলাপ আহত বাতাসে
বসন্ত ব্যস্ততায় নাইটিংগেল কোকিলেরা
অন্য মেরু-মরু জুড়ে

রেসের ঘোড়ার খুরে খুরে অতীত
ধূসর চোখে শুধু বিনীত নিঃশব্দ জেদ।
আত্মসর্বস্ব চটুল যৌবন একদিন
মনে মনে অসংখ্য উপকার করেছিলো পৃথিবীর

অদ্ভুত মানবিক বিশৃঙ্খলার মাকড়সা জালে তুমি
জানতেই না
কুমেরু জয়ে কতটা কঠিন হৃদয় চাই ---

হাজারো হিমস্নান সেরে
থেকে যেতে পারো অবিকল অবয়বে
স্পন্দনহীন বদ্ধ নিঃশ্বাসে ---
চিরন্তন চেতন ফসিল।।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন