.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০১৭

খোলা জানালায় একটি চিল-চিৎকার


।। শঙ্খ সেনগুপ্ত।।

(C)Image:ছবি














খাচ্ছি খাই লাগছে বেশ, হতাশ হচ্ছি না তো
 
চুড়োটি বেঁধে রাখি। চুল পরে যদি
বেগুনপোঁড়া-ভাতে। সারাটি সময়-
বিকট অভাব, বুকটি ঘসে যাবে।

খাচ্ছি খাই লাগছে বেশ, হতাশ হচ্ছি না তো

রঙ দেখি সঙ ও দেখি, ঘণ্টা ঘরে
যুজছে অবিরাম। মিনিটে সেকেন্ডে
পাল্টে যাচ্ছে দিক্ শূন্য বিশ্ব-গ্রাম।

খাচ্ছি খাই লাগছে বেশ, হতাশ হচ্ছি না তো

বি-পজিটিভ। মিলিজুলি নেই রক্তে। সবই
আছে ঠিকঠাক। বুকের গভীরে যাকিছু,
সবটুকু, সবটুকু দানপত্রে লিখেনি কেউ।

খাচ্ছি খাই লাগছে বেশ, হতাশ হচ্ছি না তো



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন