“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

বুধবার, ৯ মে, ২০১৮

নাগরিক ব্যাধি

।। অনিমেশ দে ।।


(C)Image:ছবি









তুমি হারিয়ে যাওনি
গুলিয়ে ফেল'নি গন্তব্য
শুধু ভুলে গেছ
রাস্তার মাপ নিতে-
ছুটে চলা চাঁদ
ছুটে চলা রাস্তায়
বিছিয়ে দেয় রুপোর ক্যানভাস
গতিময় তুলিকাদের অসংখ্য আঁচড়
শীতাতপ কামরায় হাজার ইটেরেশ্যনের পর
আসে এক বসন্তকালীন বাইকসফর
লুফে নাও এই সুযোগ-
হয়ে ওঠো জোছনাযাপনের পথযাত্রী
তন্দ্রা পেলে জিরিয়ে নিও-
অজান্তে হেসে ফেলা কোনো নদী-গল্পের বাঁকে
তবে ফজরের আযানের আগেই বেরিয়ে পড়ো
সেখানে সবাই রয়েছে তোমারই পথ চেয়ে
খামোখা ভয় পেও না-
তেপান্তরের কোনো নাগরিকপঞ্জি নেই।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন