.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ২৩ মে, ২০১৮

সত্য নীরব

 ।।        রফিক উদ্দিন লস্কর         ।। 

©Image:ছবি















মমতার টানে আজ আমি সত্যি দিশেহারা ,
ভাগ্য দিলোনা সায় তাই হলাম গৃহছাড়া ।
রঙ্গিন স্বপ্ন উড়াউড়ি করে মেলিয়ে পাখা ,
চেয়ে দেখি মায়াময় মুখটা ধূলোয় ঢাকা।
সব বদলে গেছে ঐ পথ-ঘাট আর প্রকৃতি,
প্রাচীন সংস্কৃতির আমি ক্ষণিকের অতিথি।
গগনচু্ম্বী ভবন আর চাকচিক্যতায় মানুষ ,
অর্থের কাছে হেরে গেছে, সব রঙ্গিন ফানুস।
মিটে গেছে মনের ক্ষুধা, পেটের ক্ষুধা প্রবল
অনাহারে কাঁদছে মানুষ , নেই পেয়ো জল।
ভোগসুখে যারা মেতে ওঠে, শূন্য মনের ঘর,
লোলুপ দৃষ্টি তার আপনজন হয়ে যায় পর।
দিবস রজনী তাড়া করে মরীচিকার মায়ায়,
শত অপবাদ কলঙ্ক তার শিরে শোভা পায়।
ফেলে আসা অতীত যখন দিয়ে যায় নাড়া ,
সত্যের কাছে পরাজিত তাই সব ছন্নছাড়া।
মার খায় বাস্তবতা, মনে হয় সবটা অবাস্তব,
মুখ খুলেনি কেউ দাঁড়িয়ে দেখে সত্য নীরব।
শান্তির দূত কপোত গুলো ডানা জাপটায় ,
স্বপ্নবীজ বুনে চলে নতুন ভোরের অপেক্ষায়।
২৩/০৫/২০১৮ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি (আসাম-ভারত)



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন