“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

মঙ্গলবার, ৮ মে, ২০১৮

চিরনতুন তুমি


।। অভীক কুমার দে ।।














খন নিবিড় শোরগোলে ভূগোলের মাঠ 
মনোপথিক একদিন তুমি এক রবি
অনুভবের দেশে ভিন্ন আলোয় কবি
উজ্জ্বল,
অনিমেষ,
 
খুঁজে পাও শব্দের খেই।
বহুযোজন এই হাঁটাপথ, শব্দে--
খোয়ানো মন রোপণ করেছিলে
ভিন্ন রঙ- ফুল- পাখি- নদী- মাটি,
প্রিয়, স্বজনেরা এখনও ফসল কাটি।
শব্দঘরে চিরনতুন তুমি,
আর কোনো পর খবর নেই।
আরও বহুযোজন পাড়ি হবে জানি
গ্রহজাতের ভেদককলম ব্রতীও হবে
তবু রয়ে যাবে উজ্জ্বল
শব্দের রবি সেই।
........



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন