.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ২ জুলাই, ২০১৭

বিদেশি ছেলে

ছেলে আমার বিদেশে থাকে
বাংলার ধার ধারেনা ;
হটর ফটর ইংলিশ চালায়
বাংলা সে আর বুঝেনা ।
বাংলা ভাষা শুনলে সে মুখে
তাচ্ছিল্যের রঙ ছড়ায় ,
নো নো বলে গোঁ গোঁ করে
ইম্পসিবল কিবা জড়ায় ।
আমায় বলে মাদার কাম'স
আমি কি আর বুঝি তা ?
বিশাল কলসে হাত গুঁজিয়ে
আমি তার খুঁজি থা ।
ছেলে আমার হেসেই মরে
পরাণখানি যায় দমকে ,
কি যে বলল "হটার ডুয়িং"
শুনেই গেল পিলে চমকে ।
ক'দিন পরে আমার বাবার
আইলো ভীষণ জ্বর ,
বাবা আমার ঠাণ্ডার তরে
কাঁপল ভীষণ থরথর ।
এক হপ্তা কিছু খেল না বাবায়
মরল বাবা অনাহারে ,
হট অটার চাইল সে কিবা
পারলাম না দিতে তারে ।
মরার পরে পাড়া পড়শি
বলল তার কথার মানে ,
গরম পানি চাইছিল সে
এটাই আজি আঘাত হানে ।
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন