.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই, ২০১৭

স্বপ্ন নিয়ে চলি

              
             ।।   রফিক উদ্দিন লস্কর    ।।

খিলখিলে জোছনা আকাশের মাঝে, চাঁদ উঠে হেসে,
আছে যত তারা, হয়েছে সারা, আলোতে যাচ্ছে মিশে।
নদীর জলে জোসনা পড়ে, আলোয় করে ঝিকমিক,
দেখে আলোর খেলা কাঁদে জোনাকিরা, জানায় ধিক্।
রজনী নিঝুম ঘুমোয় সারা গেরাম, তারারা শুধু জাগে,
আকাশের গায়ে চাঁদ হাসে ঐ, কতো না ভালো লাগে।
নিশাচর ডাকে পথের বাঁকে, ভাতঘুম ভাঙে মাঝরাতে,
বনের লতা আর কয়না কথা, শুয়ে আছে এক সাথে।
চাঁদের কিরণ সে মুক্তোর মতন, ঝরে পড়ে রাশি রাশি,
পাপড়ি পত্র মাঝে জমেছে শিশির,কথা কয় হাসি হাসি।
মনের অতলে প্রাণের সাড়া , যেথায় বাঁধে প্রীতির বাসা,
রাতের শেষে সোনালী ভোর, মনের মাঝে জাগে আশা।
চাঁদের সাথে থাকি মায়াবী রাতে,আমি বহুদূর চলে যাই,
স্বপ্ন নিয়ে চলি জীবনে হয়তো বা কিছু তাতে খুঁজে পাই!
পক্ষ পরে আসে অমানিশা, ঢলে পড়ে তার যৌবনা রূপ,
নেই বড়াই চলে জোসনা,আঁধারের মাঝে হয়ে যায় চুপ।
-------------------------------------------------------------
০৬/০৭/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি(আসাম-ভারত)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন