.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শনিবার, ৭ জুলাই, ২০১৮

কিছু কথা তোমার জন্য- ৩৩

।। অভীক কুমার দে ।।

হে পাহাড়,
এক ঈশ্বর কি দেখালে দানব নেমেছে রাস্তায়,
স্বপন তো হারিয়েই যাবে মৃত্যু যেখানে সস্তায়।
মানুষের ভেতর কত আর মানুষ ধরে
মনের ভাষা বোঝে না, মগজে বাস করে।
পাথুরে শরীর তরল ঝরায় নদীর বাঁকা পথে,
অবুঝ আবেগ সরল হারায়, ধৃতরাষ্ট্র রথে।

হে পাহাড়,
মানবতা যদি খুঁজে পাও
ভাসিয়ে দিও নদীজলে ঘন বর্ষায়,
যান্ত্রিক গণজন, কে বাঁচে কার ভরসায় !
মনোবনে বাঁধা মন জানে রিফিউজি,
আজও তুমি তুমি আছো, সেই লতা খুঁজি।

হে পাহাড়,
বিন্দু জল জড়ো করো,
ভিজিয়ে দাও-- মন- প্রাণ- অপতাপ,
এ বর্ষা তোমার, ধুয়ে যাক সব পাপ,
ভেতর ঘরে মানুষ গড়ো।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন