“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

বৃহস্পতিবার, ৫ জুলাই, ২০১৮

মাইক্রো জীবন

।। অভীক কুমার দে ।।










কীটপতঙ্গের মতোই হাঁটছে কাঠামো সব
ওরা দলে নির্দলে
ঠিকঠাক লাইন চেনে
লাশ ঠেলে চলতে জানে।
ওরা ঠিক জানে, নিজেও লাশ হবে একদিন
অন্য কেউ আবার লাশ ঠেলেই চলবে,
তবু একেকটি মৃত্যু বয়ে বেড়ায় মাইক্রো জীবন।
কাঠামো সব অমানবিকতার ক্যানসারে ভুগছে
হাসি কান্না সুখ দুঃখ সবকিছুতেই বিভ্রান্ত স্নায়ু
কিছুই দেখে না
কিছুই শোনে না
ওরা দলে নির্দলে
কীটপতঙ্গের মতোই হাঁটছে আর...
অন্তঃপুরে নির্ঘাত জেগে থাকে অমানুষ
একেকটি মৃত্যু বয়ে বেড়ায় মাইক্রো জীবন।
..........


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন