“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো ,স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ...তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!—সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!” ০কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ০

বুধবার, ১১ জুলাই, ২০১৮

নীরব অশ্রু- ৪৫

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি










কাকিত্ব আমিও খুঁজে নিতে পারি
কেউ আকাশ মেলে ধরো
সব উষ্ণতা বিছিয়ে দেবো নীরব কক্ষপথে।
কিছু গোপন উত্তাপ মুখ গুঁজে নেবে মিছিলে,
সামনেই ছায়াপথ
অসহায় তারাদল
সাদা থানে ঢেকে যাক সত্য যা কিছু
পিছুটানে নীল চাকা আরও নীল হবে।
এ রাত, এই শূন্যতা কারো একার নয়
একাকিত্ব খুঁজে নিতে পারো তুমিও।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন