.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

আধুনিক


।।শৈলেন দাস।।


(C)Image:ছবি




















বাবা তাঁর ছেলেকে বললেন
কাল একটু বাড়িতে থাকিস্, কারণ
হীরেন ও তার স্ত্রী কাল আসবেন
আমাদের বাড়ীতে, তোকে দেখতে।
লক্ষী যখন ধরা দিতে চায়
তখন না বলতে নেই, তারচেয়ে
পাকাকথা দিয়ে দেওয়াই
বুদ্ধিমানের কাজ।
মার কথা-
রিমি যদিও নয় গৃহকর্মে নিপুণা
দেখতে কিন্তু মোটে খারাপ না।
বড় ঘরের মেয়ে হলেও ধীরে ধীরে
সবকিছুতে মানিয়ে নেবে ঠিকই।
একজন সাতাশ বছরের স্বনির্ভর ছেলে
ওসবে তেমন গুরুত্ব দিলনা, কারণ
তার চিন্তা একটু আধুনিক
সে একটি গরীব মেয়েকে ভালবাসে।।
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন