.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

তাভ মায়লিউ

রাজেশ চন্দ্র দেবনাথ

রাতের আব্রু ছিঁড়ে পাখিজগতে
গুণগুণ বাজে হাকে বক।
হাওয়ায় হাওয়ায় বলে যায় ইয়া তেবয়া লিউবিউ
শিশির ভেজা মাঠ কেঁদে কেঁদে খবর ছড়ায় নানু নিনানু প্রীতিসুথিন
বাচার জন্য জীবন মানে ইস লিবে দিস
কাঠ হাতে বালক চেচায় দুস্তাত দারাম
প্রেমের উষ্ণতা চাঁদের বারান্দায় বলে যায় মেনা তান্দা উইনা
শতবর্ণ কবি লিখে রাখে
মহে পেন্দা,নাকু পেন্দা,মিলুই তে
প্রচ্ছদে সভ্যতায় সুদীর্ঘ ছায়া একে যায় তাইম ইনগ্রালিত।
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন