.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৬

স্বাধীনতা

ত্রিবর্ণ পতাকার ওপর এখন
মধ্যদিনের খরসূর্য
পিচ্ছিল স্বেদসিক্ত
দাবদাহময় জীবন
রাজদন্ডের পদতলে নত
স্বাধীনতা, কুন্ডলিকৃত ছায়াচিত্রের মত৷
যে মাটিতে মাথা ছোঁয়াতে চেয়ে
বহুদিন ধরে হেঁটে আসা
বহুজনসাথে
সে ফুটিফাটা মাটির ছবি
শুধুই কৃষ্ণগহ্বরময়
হতাশ্বাসের বিষবাষ্প
অনাস্থায় রোধ করে
পতাকার অক্লান্ত ওড়া
জনগণচিতে
তবুও প্রাণহীন অর্থহীন মন্রের
ত্রাণহীন উচ্চারণে ভরা
স্বাধীনতা দিবস--- তোমার পসরা



" সারে জহাঁ সে অচ্ছা হিন্দোঁস্তা হমারা----"



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন