.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ২৯ জুন, ২০১৮

নেশার পরিণাম

   ।।             রফিক উদ্দিন লস্কর          ।।
মাঝরাতে তুমুল লড়াই শহরের এক অন্ধ গলিতে
গন্ধ পেয়ে নেশার সন্ধানে,
কি কাণ্ড! রক্তারক্তি, এখন হাসপাতালের বেডে
ভাগ বাটোয়ারা হয়নি ঠিকমতো।
এক বেকার ছেলে আর এক হলো গ্রামসেবক
বাহুবল আছে বলে সবাই চেনে
গুরুর ছেলে!  কতো মানুষ করেছেন তিনি নিজেই
নিজের বেলায় অমানুষ বটে!
আর ঐ গ্রামসেবক ; সে নিজেই একাই একশো
কিন্তু আজকাল আর ওসব নেই।
নেশা সেবনে একদম শূন্য, টাকা-সম্পত্তি, ইজ্জত
সাথে নিজের অমূল্য জীবন।
ভালো ঘরের প্রায় অনেক, বাহঃ! আদরের দুলাল
দেখলে তারে মনে হয় নিঃস্ব,
পাগলের মতো চলাফেরা, রাতবিরেতে একা একা
একটু নেশা চাই,....নেশা।
------------------------------------------------------------------
২৯/০৬/২০১৮ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি (আসাম)






একটি মন্তব্য পোস্ট করুন