.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

একুশে ফেব্রুয়ারি


।। চিরশ্রী দেবনাথ ।।
(C)Image:ছবি















ভাষার কাছে আসি উপযাচকের মতো, 
ভালোবাসার কাছে যেমন মানুষ যায়। 
ভাষা সেই রুদ্র রোদ, কাল বৈশাখী, ঘাসফড়িঙের শখ,
আকাশের নক্ষত্র নিভে যাওয়া ভোরের মতো অভিমান
তার কাছে আমার অঙ্গ, অঙ্ক, রোমের শিহরণ সূক্ষ্মতায় বাঁধা
এই শহরসময়েও পাখিরা ঘরে ফেরে রোজ,
ঝাঁকবাঁধা মনোমালিন্যের মতো। 
কোটরে ঝমঝম করে অগরু গন্ধ অমলিন, 
পাখির ভাষায় শষ্যের আদানপ্রদান, চঞ্চুতে মায়াবী সন্ধ্যা
নিবিড় পাহাড়ি গ্রামে অস্পষ্ট লন্ঠনে তখন জ্বলে ওঠে
শিশুর প্রথম পাঠ, সাতটি তারার কোলাহল
থাকো তুমি ভিনদেশী ভাষা জঠরের উদ্বাস্তু যাপনে 
 ক্ষিদে পেলে, আকন্ঠ শিশির জমে ওঠে গলায়
 প্রান্তরে  আমার ভাষায়, সোনালী ভাত,  লাল সূর্য
ঢেকে দিয়ে যায় আমাকে, ক্ষুধায়, প্রেমে, আদরে, অক্ষরের অভিমানে । 
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন