.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

রূপনগর সংবাদ --- ৩২
















।। মধুমিতা নাথ।।
(ত্রিপুরার রাজন্য আমলের কবি অনঙ্গ মোহিনী দেবীর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য)

লিন্দ আর নিলয়ের মাঝখানে
বহমান ঝিরঝির ছোট নদী
কিছু রূপ চুপ কথা
রোজ লজ্জাবতী ফুল হয়ে ফোটে
কূজন-মুখরিত উপত্যকা ঢাল গড়িয়ে
বনছায়া কাঁপে তিরতির।
অদৃশ্য হাতছানিতে
পেলব দিনগুলোর অবাক জলপান।
সেদিন শ্রাবণ ঢল ,
যৌবনা স্রোতস্বিনী উথাল পাথাল
নীলাভ অভিযানে বেসামাল বেসামাল
আপন কস্তুরী গন্ধে হরিণী মাতাল।
স্বপ্ন-সেতু-বন্ধন শেষে হেমন্ত নামে , ফসল শূন্য মাঠে অবারিত অপেক্ষা
একবিন্দু সুধা সিঞ্চন আকুলতা
ঝিম-ধরা সময়ে
পুড়ে পুড়ে খাক হয় কিছু জ্বলন্ত দুপুর।।
-------------//--------

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন