.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ২৩ মে, ২০১৬

ডুব দেবো আবার


© সুনীতি দেবনাথ

সুস্থিতির সুচ্ছায় প্রান্তিকে স্বচ্ছ জলে ডুব ডুব!
হে স্বর্গীয় দ্যুতির হিরণ্ময় পক্ষী পানকৌড়ি দাও ডুব!
মগ্নতার এই স্তব্ধ চরাচরে ডুব দাও জেগে ওঠো বারবার মৌন অনুভবে,
চৈতন্যের এই প্রকাশ জাগিয়ে তোলে তোমার সাথে আমাকে —
পরমের অনুভব ব্যক্ত করো ব্যাপ্ত করো নতুন প্রকাশে,
ডুব ডুব চিরন্তন ডুব,  অতলের সুগভীর তল থেকে খুঁজে আনো—
বাস্তব পরাবাস্তবের সুগভীর অতল থেকে টেনে আনো,
অন্তর আত্মার আর্ত ক্রন্দনধ্বনির সাথে
জীবনের নতুন উপকূলে জেগে ওঠার, 
আবার শুরুর প্রাণিত অভিযাত্রা তোমার আমার।
ডুব দাও ডুব দিই এই অনন্ত জলে !

চেন্নাই,
১৭ এপ্রিল, ২০১৬

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন