.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৬

চলমান গল্প; কবি ১.


কবিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুদিন আগে। সুস্পষ্ট কোন অভিযোগ ছাড়াই একদল পুলিশ গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে বাড়ি থেকে তুলে এনেছে কবিকে। রাষ্ট্র এবং সমাজব্যবস্থাকে খুঁচা দিয়ে সামান্য কিছু লেখালেখি তাছাড়া সর্বহারাদের সাথে মিশে থাকার প্রবণতা বা সামাজিক সমতা দাবী করার মত কয়েকটি সভাসমিতিতে যাওয়াতেই কি আজকের এই পরিণতি?  পুলিশ লক আপে বসে ভাবছেন কবি। ইতিমধ্যে পুলিশের অধস্তন কর্মচারীদের কাছ থেকে কবি জানতে পেরেছেন প্রভাবশালী এক ব্যক্তির ফোন পেয়েই নাকি তাকে তুলে আনা হয়েছে। পুলিশের এই আচরণে সুশীল সমাজের কয়েকজন রুষ্ট হয়েছেন, তারা উপর মহলে নালিশ জানানোর পাশাপাশি কবিকে মুক্ত করে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন। স্থানীয় একটি দৈনিকেও গুরুত্বসহকারে ছাপা হয়েছে বিষয়টি।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন