.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ২৪ জুন, ২০১৬

ছবি মেয়ে

 























/চিরশ্রী দেবনাথ /
ধর্ষণের পর থেকে এক ছবিমেয়ে
শুধু সঙ্গমের ছবি আঁকে
মোহ, সাপ, কলা, রস, ছোঁয়াচে অসুখ
ছড়িয়ে ছড়িয়ে আঁকতে থাকে বাৎসায়ন
আনতচোখের মেয়েটি দিনের পর দিন
হয়ে উঠছে অশ্লীল কেবলই অশ্লীল
তার চোখে ঢেউ হয়ে নেমে আসে জোয়ারের শরীর
এতো শরীরী সে তো ছিল না কখনো
হলুদরঙা মেয়েটির বারান্দার
একপাশের ঘরে ঝুলে থাকা
দেয়ালে  এ শুধু নোংরা ছবি
মোমরঙা ঊরুতে যে তিল ফুটেছিলো
সেখানে সে তার পেন্সিল ডোবায়
দীর্ঘ পথ খুলে যায়, এতো এতো মেয়ে সেখানে
চারদিকে ফুল ক্ষত, সাদা নখের আঁচর
আচ্ছন্ন এক রাজপথ ... রঙে জলে ভেজা,
ছবির পর ছবি বসে আছে হাঁটু ভেঙে....
ছবিরও যোনি থাকে, যোনিতে  তুলি
তুলিতে আঁকছে সেই মেয়ে শ্বেত মরুভূমি.....




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন