.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শনিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০১৭

সামান্য সকাল

।। দেবলীনা সেনগুপ্ত।।
(C)Image:ছবি
 















ভিলাষী সকাল
ভীরুপায়ে দাঁড়িয়েছে চাতালে
চড়ুই ও শালিকের আলাপে
জেগে ওঠে দিন৷
ফুটেছে অনগ্রসর দোপাটি
নয়নতারার সারি
কাকচক্ষু শিশির মেখে
বিষণ্ণ বাগানে৷
অভিজাত গোলাপের কুঁড়ি
রোদেলা হাওয়ায় উধাও যথেচ্ছাচারে
ঘাসবনে ফেলে রেখে একা নীল খাম
ঝাউপাতার মোড়কে, চুপিসারে৷
স্পর্শ কোরো না আমাকে,
জেগে ওঠা দিনে
শরীর স্পর্শকাতর বড়
সময়ের মতো৷
একান্ত স্নানশেষে
ঐশী অন্নজলের পাশে
গোলাপের হাতছানি ভুলে রাখি
অযত্নের দোপাটি
নয়নমণি ভালোবেসে৷
তারপরে আত্মপ্রসাদ
এ জীবনমধুর বিষাদ৷




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন