.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৬

পাখীগুলি ঘরে ফিরবে ...

এতক্ষণে শিশু ভয়ে মায়ের গলা জড়িয়ে
মা হাপুস নয়নে রক্তস্নাত মাটির দিকে
মাটি কেঁপে উঠতেই পাখীরা ডানা ঝাপটায় ...
এখন -
মিছিল মিটিং শ্লোগান ধর্ণার বীজ
উত্তাপে ভেজে দেওয়া হচ্ছে
তবু অঙ্কুরিত হয় - এখানে ওখানে
এখন তাই ...
আলো নিভিয়ে দেওয়া হয়
স্তব্ধতা সালোক সংশ্লেষনে ...
গাছগুলিও নাছোরবান্দা
ফ্ল্যাশ বেকে পুরুনো দিন ...
বেড়ার ফাঁক গলিয়ে যে আলোটা আসছে
সেদিকে ঝোঁকে যায় সদলবলে ...
পাখীগুলি ঘরে ফিরবে ...
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন